নোবেল জয়ের পর প্রথম উপন্যাস লিখলেন কাজুও ইশিগুরো

নিউজ ফ্যাক্টরি: নোবেলজয়ী জাপানি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ উপন্যাসিক কাজুও ইশিগুরো কিন্তু প্রথমে লেখক হতে চাননি। গায়ক এবং গীতিকার হওয়ার একান্ত ইচ্ছা ছিল তার। আর এই স্বপ্ন পূরণের লক্ষ্যে ১৯৬০ এর দশকে নিজের প্রিয় অ্যাকোস্টিক গিটার নিয়ে ইংল্যান্ড থেকে যুক্তরাষ্ট্রের সান ফ্রান্সিসকো গিয়েছিলেন তিনি।

সম্প্রতি দেয়া একটি সাক্ষাতকারে ইশিগুরো এই তথ্য প্রকাশ করেন। কিন্তু তিনি যা ভেবে সুদূর যুক্তরাষ্ট্র চলে গিয়েছিলেন, সেই আশা তার পূরণ হয়নি। দেশটিতে যাওয়ার এক মাসের মধ্যেই তার গিটার চুরি হয়ে যায়। যেহেতু তিনি আগে থেকেই গান লিখতেন তাই ফিকশন লেখার প্রতি আগ্রহী হলেন। তার উপন্যাস লেখার মূল ভিত্তি হিসেবে নিজের গীতিকার সত্ত্বার কথা উল্লেখ করেন তিনি।

নোবেলজয়ী এই লেখক বলেন, ‘এখনও পর্যন্ত লেখক এবং উপন্যাসিক হিসেবে আমি যা করেছি, আমি মনে করি তার অনেক কিছুর মূলেই আমার গীতিকার সত্ত্বার অবদান রয়েছে।’ তিনি মনে করেন, গান লেখার মাধ্যমেই তার উপন্যাস লেখার হাতেখড়ি হয়েছে। সে কারণেই তিনি তুলনামূলক পরিণত অবস্থায় লেখক হিসেবে ক্যারিয়ার শুরু করতে পেরেছেন।

তিনি আরো বলেন, ‘ আমি মনে করি আমার প্রথম উপন্যাস অন্য সাধারণ প্রথম উপন্যাসের মত নয়। দ্য রিমেইন্স অব দ্য ডে’কে অনেকেই আমার অন্যতম সেরা বই বলে মনে করে। অথচ এটি আমার তৃতীয় উপন্যাস ছিল এবং আমি যখন ত্রিশের কোঠায় ছিলাম তখন এটি লিখেছি। এতকিছু সম্ভব হয়েছিল কারণ গীতিকার হিসেবে অনেক আগেই লেখক হওয়ার প্রাথমিক ধাপ অতিক্রম করেছি আমি।’

কাজুও ইশিগুরোর নতুন উপন্যাস ক্লারা এন্ড দ্য সান। এই উপন্যাসের কেন্দ্রীয় চরিত্র ক্লারা নামের একটি রোবট। বইটি ২ মার্চ প্রকাশিত হয়। ২০১৭ সালে সাহিত্যে নোবেল জয়ের তিন বছর পর এই প্রথম উপন্যাস প্রকাশ করলেন তিনি। তার উল্লেখযোগ্য অন্যান্য বই হলো, নেভার লেট মি গো, দ্য রিমেইন্স অব দ্য ডে, দ্য বারিড জায়ান্ট।

সূত্র: এনপিআর

Leave a Reply