একুশে বইমেলার শেষ দিনে গুণীজন স্মৃতি পুরস্কার-২০২২ দেয়া হয়েছে। ৪টি ক্যাটাগরিতে ৮টি প্রকাশনা প্রতিষ্ঠানকে এই পুরস্কার দিয়েছে বাংলা একাডেমি।

দেশের বিশিষ্ট চারজন গুণী ব্যক্তির নামে বাংলা একাডেমি এই পুরস্কার প্রবর্তন করেছে। এগুলি হলো, চিত্তরঞ্জন সাহা স্মৃতি পুরস্কার, মুনীর চৌধুরী স্মৃতি পুরস্কার, রোকনুজ্জামান খান দাদাভাই স্মৃতি পুরস্কার, শিল্পী কাইয়ুম চৌধুরী স্মৃতি পুরস্কার।

২০২১ সালে প্রকাশিত বিষয় ও গুণমানসম্মত সর্বাধিক সংখ্যক গ্রন্থ প্রকাশের জন্য আগামী প্রকাশনীকে চিত্তরঞ্জন সাহা স্মৃতি পুরস্কার-২০২২ দেয়া হয়েছে।    

২০২১ সালে প্রকাশিত গ্রন্থের মধ্যে শৈল্পিক ও গুণমান বিচারে সেরা গ্রন্থ বিভাগে মুনীর চৌধুরী স্মৃতি পুরস্কার-২০২২ দেয়া হয়েছে তিনটি প্রকাশনীকে। এগুলি হলো, আবুল হাসনাত সম্পাদিত ‘বঙ্গবন্ধু জন্মশতবর্ষ স্মারক’ প্রকাশের জন্য বেঙ্গল পাবলিকেশন্স, জালাল ফিরোজ রচিত ‘লন্ডনে বঙ্গবন্ধুর একদিন’ গ্রন্থের জন্য জার্নিম্যান বুকস ও সৈয়দ আবুল মকসুদ রচিত ‘নবাব সলিমুল্লাহ ও তাঁর সময়’ গ্রন্থের জন্য প্রথমা প্রকাশন।

রোকনুজ্জামান খান দাদাভাই স্মৃতি পুরস্কার-২০২২ পেয়েছে কথাপ্রকাশ। ২০২১ সালে প্রকাশিত শিশুতোষ গ্রন্থের মধ্য থেকে গুণমান বিচারে সর্বাধিক গ্রন্থ প্রকাশের জন্য এই প্রকাশনীকে পুরস্কারটি দেয়া হয়।   

এদিকে চলতি বছর বইমেলায় অংশগ্রহণকারী প্রকাশনা প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্য থেকে নান্দনিক অঙ্গসজ্জায় সেরা প্রতিষ্ঠান হিসেবে নবান্ন প্রকাশনী, নিমফিয়া পাবলিকেশন এবং পাঠক সমাবেশকে শিল্পী কাইয়ুম চৌধুরী স্মৃতি পুরস্কার-২০২২ দেয়া হয়।

বৃহস্পতিবার (১৭ মার্চ) একুশে বইমেলার সমাপনী অনুষ্ঠানে আনুষ্ঠানিকভাবে পুরস্কারগুলো দেয়া হয়। পুরস্কারপ্রাপ্ত সকল প্রকাশককে ৫০ হাজার টাকার চেক, সনদ ও ক্রেস্ট দেয়া হয়।  

Leave a Reply