৭৫তম কান চলচ্চিত্র উৎসবের লাল গালিচায় হাঁটলেন বাংলাদেশের চলচ্চিত্র গবেষক, সাংবাদিক বিধান রিবেরু। মর্যাদাবান এই উৎসবের ইন্টারন্যাশনাল ফেডারেশন অব ফিল্ম ক্রিটিকসের (ফিপরেস্কি) বিচারক হিসেবে আমন্ত্রিত হয়েছেন তিনি।

বৃহস্পতিবার (১৯ মে) রাতে কানের লাল গালিচায় উপস্থিত হন বিধান রিবেরু। এ সময় ইন্টারন্যাশনাল ফেডারেশন অব ফিল্ম ক্রিটিকসের (ফিপরেস্কি) অন্য বিচারকরাও তার সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন। ১৭মে শুরু হওয়া এই চলচ্চিত্র উৎসব চলবে ২৮ মে পর্যন্ত।

লাল গালিচায় হাঁটার অনুভূতি জানিয়ে ফেসবুকে তিনি লিখেন, ‘কানের লাল গালিচা অন্যরকম এক অভিজ্ঞতা। বাংলাদেশ থেকে এই রেড কার্পেটে হেঁটে বাংলাদেশকেই বারবার মনে হয়েছে, কারণ আমার নামের সাথে আমার দেশের নামও উচ্চারিত হয়েছে আজ একই প্রেক্ষাগৃহে জুলিয়া রবার্টসও ছবি দেখবেন। তারার মেলায় নিজেকে কৃষ্ণগহ্বর মনে হচ্ছে।’  

কান চলচ্চিত্র উৎসবের প্রতিযোগিতা শাখা আঁ সার্তে রিগা এবং প্যারালাল সেকশন ইন্টারন্যাশনাল ক্রিটিকস উইক থেকে সেরা একটি করে ছবি পুরস্কারের জন্য নির্বাচিত করে ফিপরেস্কি। বিধান রিবেরু প্যারালাল সেকশন ইন্টারন্যাশনাল ক্রিটিকস উইকে নির্বাচিত ছবিগুলো দেখে বিজয়ী ছবি নির্বাচন করবেন। তাঁর সঙ্গে থাকবেন বিভিন্ন দেশের চলচ্চিত্র সমালোচকেরা।

 কানে ফিপরেস্কি বিচারক (বাঁদিক থেকে ঘড়ির কাঁটার দিকে)  জিহান বুগরিন (মরক্কো), আহমেদ শোকি (মিশর), সিমন সরানা (ইতালি), বিধান রিবেরু (বাংলাদেশ), নাতালি শিফলে (ফ্রান্স), মারিওলা উইকটর (পোল্যান্ড), ম্যাগালি ভ্যান রিথ (ফ্রান্স)

বিধান রিবেরু প্রাবন্ধিক, অনুবাদক ও সাংবাদিক। তিনি কম্পিউটার বিজ্ঞানে স্নাতক সম্পন্ন করেছেন। এরপর নরওয়ে সরকারের বৃত্তি নিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণ যোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগ থেকে স্নাতকোত্তর করেছেন।  ২০০৫ সালে তিনি সাংবাদিকতায় যুক্ত হন।  

এছাড়া দেশের প্রথম সারির টিভি চ্যানেলে কাজ করেছেন তিনি। চলচ্চিত্র নিয়ে নিয়মিত লেখালেখি করছেন বিভিন্ন পত্রিকায়। তাঁর উল্লেখযোগ্য গ্রন্থের মধ্যে রয়েছে, চলচ্চিত্র পাঠ সহায়িকা, চলচ্চিত্র বিচার, শাহবাগ : রাজনীতি ধর্ম চেতনা, বিবিধ অভাব : লিওনার্দো লালন লাকাঁ, বলিউড বাহাস।

বাংলাদেশের প্রথম চলচ্চিত্র সমালোচক হিসেবে কানে উপস্থিত ছিলেন আহমেদ মুজতবা জামাল। তিনি ২০০২ সালে ফিপরেস্কির বিচারক হন। ওই আসরে বাংলাদেশি নির্মাতা তারেক মাসুদের ‘মাটির ময়না’ ফিপরেস্কি পুরস্কার জিতে নেয়। এছাড়া ২০০৫ এবং ২০০৯ সালেও ফিপরেস্কির বিচারকের দায়িত্ব পালন করেছিলেন আহমেদ মুজতবা জামাল।   

প্রথম বাংলাদেশি নারী হিসেবে সাদিয়া খালিদ রীতি ২০১৯ সালে ফিপরেস্কি জুরির আমন্ত্রণ পান।

২০২১ সালে কানের অফিসিয়াল সিলেকশন আঁ সার্তে রিগায় স্থান পেয়ে ইতিহাস গড়ে আবদুল্লাহ মোহাম্মদ সাদের ‘রেহানা মরিয়ম নূর’।

Leave a Reply